1. info@dainikashardigonto.com : দৈনিক আশার দিগন্ত : দৈনিক আশার দিগন্ত
  2. info@www.dainikashardigonto.com : দৈনিক আশার দিগন্ত :
রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ০৮:৩৪ অপরাহ্ন

ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে কাজিপুরে ৩৪% ভোটাধিকার প্রয়োগ হয়েছে

  • প্রকাশিত: সোমবার, ২০ মে, ২০২৪
  • ৩৯ বার পড়া হয়েছে

বিশেষ প্রতিবেদকঃ

ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রথম ধাপে গত ৮ মে অনুষ্ঠিত কাজিপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ৩৩.৯৬% ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন। নির্বাচন কমিশন কর্তৃক স্থাপিত ১২২ টি ভোটকেন্দ্রে তারা ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। ইভিএম মাধ্যমে ভোট অনুষ্ঠানে সাধারণ ভোটারের তুলনায় দলীয় ভোটারের সংখ্যা ছিলো বেশি, বলছেন সচেতন মহল।সিরাজগঞ্জ জেলার উত্তরের সীমানার কাজিপুর উপজেলা ১২ টি ইউনিয়ন পরিষদ এবং ১টি পৌরসভা নিয়ে গঠিত। যমুনা নদী দ্বারা বিভক্তিতে উপজেলার ৬ টি ইউনিয়ন চরাঞ্চলে। গত ৮ মে বুধবার ৬ষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রথম ধাপে (ইভিএম) ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের মাধ্যমে সুষ্ঠুভাবে ভোট গ্ৰহণ করা হয়। নির্বাচনে ৩৩.৯৬ শতাংশ ভোটার ভোটাধিকার প্রয়োগ করে। উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয় এবং ষষ্ঠ কাজিপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনী ফলাফল সূত্রে জানা যায়, উপজেলায় নারী পুরুষ মিলিয়ে মোট ২৩৪৫৯৮ জন ভোটার রয়েছেন, ৭৯৬৬৯ জন ভোটার কেন্দ্রে গিয়ে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন, এরমধ্যে ২৪৭ টি ভোট বাতিল এবং ৭৯৪২৬ টি ভোট বৈধ বলে গণ্য হয়।স্থাপিত ১২২ টি ভোটকেন্দ্রের মধ্যে ভোটারের গড় উপস্থিতি বিবেচনায় সর্বোচ্চ ভোটার উপস্থিতি ছিলো সোনামুখী ইউনিয়নের দক্ষিণ পাইকপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে।কেন্দ্রটির মোট ভোটার সংখ্যা ১৩৯৫, উপস্থিত হয়ে ভোটাধিকার প্রয়োগ করে ৭৮০ জন, এর মধ্যে ৭৭২ টি বৈধ ভোট এবং ৮ টি ভোট অবৈধ হিসেবে গণনা হয়। যা কেন্দ্রটির মোট ভোটার সংখ্যার ৫৫.৯১ শতাংশ, সকল কেন্দ্রের তুলনায় বেশি। সর্বনিম্ন ভোটার উপস্থিতি ছিলো ৩২ নং কেন্দ্র চালিতাডাঙ্গা ইউনিয়নের চরভানুডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় (দক্ষিণ পাশ একতলা নতুন ভবন), এই কেন্দ্রের মোট ভোটার সংখ্যা ২৩০৭, এরমধ্যে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন ৩৪৪ জন, যা কেন্দ্রটির ভোটার সংখ্যার ১৪.৫১ শতাংশ। পৌরসভা এলাকায় ভোট সংগৃহীত হয়েছে ৩৬%, এছাড়াও ইউপিগুলোর ভোটার উপস্থিতি সোনামুখী ইউপি ৩৬%, চালিতাডাঙ্গা ইউপি ৩৭%, গান্ধাইল ৪২%, শুভগাছা ২৩%, কাজিপুর ৩৯%, মাইজবাড়ী ৩৪%, খাসরাজবাড়ি ২৬%, চরগিরিশ ৩৩%, নাটুয়ারপাড়া ৩৩%, তেকানি ৩৫%, নিশ্চিন্তপুর ২৭%, এবং মনসুর নগর ইউনিয়নে ৩৫ শতাংশ।ষষ্ঠ কাজিপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৩জন প্রতিদ্বন্দ্বীতা করে। এরমধ্যে আনারস প্রতীকের খলিলুর রহমান সিরাজী ৪৫২৩৯ ভোট পেয়ে ২য় মেয়াদে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন। এছাড়াও তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বে রয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ঘোড়া প্রতীকের প্রার্থী এবং সাবেক সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল আলম পেয়েছেন ২৫৬০৪ ভোট, অপর প্রতিদ্বন্দ্বী বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম আজাদ পেয়েছেন ৮৫৮৩ ভোট।

ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হন তালা প্রতীকের সেলিম হোসেন, তিনি ৩৮৩০৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন, তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদকের দায়িত্বে রয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মাইক প্রতীকের শাহীনুল ইসলাম শাহীন পেয়েছেন ৩১২৮৩ ভোট। অপর প্রার্থী টিয়া পাখি প্রতীকের প্রতিদ্বন্দ্বী সাইফুল ইসলাম পেয়েছেন ৯৮৮৩ ভোট।মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৫ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন, এরমধ্যে হাঁস প্রতীকের প্রার্থী ও সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান সুলতানা হক ৩৩৮০৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। বর্তমানে তিনি উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পদে দায়িত্বরত। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ফুটবল প্রতীকের প্রার্থী জান্নাতুল ফেরদৌস পেয়েছেন ২১৮২১ ভোট। এছাড়াও সদ্য বিদায়ী মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শাপলা খাতুন পেয়েছেন ১২৭৩৬ ভোট, জুলেখা খাতুন ৬৬৪৮ ভোট এবং বিলকিস খাতুন পেয়েছেন ৪৪৬১ ভোট। স্থানীয় সচেতন মহল সূত্রে জানা যায়, এবার নির্বাচনী প্রচারণা করা হয়েছে উপজেলার প্রধান সড়ক, বাজার এলাকা বা চা দোকান কেন্দ্রিক, ফলে সাধারণ ভোটারদের মধ্যে ভোটাধিকার প্রয়োগে অনিহা লক্ষ্য করা গেছে, উপস্থিতির সিংহভাগ ছিলো দলীয় নেতাকর্মীরা ও তাদের পরিবার।গত ৮ মে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন ( ইভিএম) মাধ্যমে ভোট গ্ৰহণ অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলায় মোট ভোটার সংখ্যা ২৩৪৫৯৮ জন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
𝐂𝐫𝐚𝐟𝐭𝐞𝐝 𝐰𝐢𝐭𝐡 𝐛𝐲: 𝐘𝐄𝐋𝐋𝐎𝐖 𝐇𝐎𝐒𝐓