1. info@dainikashardigonto.com : দৈনিক আশার দিগন্ত : দৈনিক আশার দিগন্ত
  2. info@www.dainikashardigonto.com : দৈনিক আশার দিগন্ত :
মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ০৩:৫৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :

বীরগঞ্জ সরকারি কলেজে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর ১০৪ তম জন্মবার্ষিকী পালন না করায় শিক্ষকদের মাঝে ক্ষোভ, কলেজ ছাত্রলীগের বিক্ষোভ মিছিল

  • প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ, ২০২৪
  • ২২ বার পড়া হয়েছে

রুবেল,দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ

দিনাজপুরের বীরগঞ্জ সরকারি কলেজে জাতীর পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০৪ তম জন্মবার্ষিকী ১৭ মার্চ রবিবার কলেজ প্রশাসনের উদ্যোগে অফিসিয়াল কোন পদক্ষেপ বা নোটিশ না থাকার কারণে শিক্ষক, শিক্ষিকা ও ছাত্র/ছাত্রীদের মধ্যে জাতীর পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০৪ তম জন্মবার্ষিকী পালন না করায় তীব্র ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে।সংবাদ পেয়ে সরজমিন কলেজ ক্যাম্পাসে গেলে উপজেলা যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি, কলেজ শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক সহকারি অধ্যাপক আমিনুল ইসলাম মিন্টু জানান, জামাতের এজেন্ডা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে অধ্যক্ষ ড. একেএম মাসুদুল হক যোগদানের পর থেকে কলেজে জামাত সমর্থিত শিক্ষকদের সঙ্গে সখ্যতা গড়ে তুলেছেন। কলেজে যাতায়াত তার ইচ্ছা মত করে থাকেন। সরকারি নিয়ম নীতি তোয়াক্কা না করায় প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষার মান দিন দিন নষ্টের দিকে যাচ্ছে।শিক্ষক কর্মচারীদের সাথেও তার নেই কোন সৌহার্দ্যপূর্ণ যোগাযোগ, চলছে বৈরী আচরণ।প্রভাষক নজরুল ইসলাম খান বুলু জানান, ১৭ মার্চ আবারো জাতীর পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০৪ তম জন্মবার্ষিকী পালনে আনুষ্ঠানিক কর্মসূচি না থাকায় জাতির প্রতি চরম অবমাননা করা হয়েছে।আবারো জাতীর পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষনের তাৎপর্য তুলে ধরে ছাত্র/ছাত্রীদের মধ্যে কোন আলোচনা ও কোন আনুষ্ঠানিক কর্মসুচি পালন করেন নাই। যার তীব্র প্রতিবাদ জানাই । প্রভাষক জাহিদুল ইসলাম ফরহাদ জানায়, কলেজটি জাতির পিতার কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার ২০১৮ সালে কলেজটি জাতীয়করণ করে শিক্ষার মান উন্নয়নে বীরগঞ্জ বাসীকে একটি সরকারি কলেজ উপহার হিসেবে দিয়েছে সেই প্রতিষ্ঠানে জাতীর পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্বরণ করে কোন অনুষ্ঠান যথাযথ মর্যাদায় পালন করা হবে না মেনে নেওয়া যায় না।উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফজলে এলাহী মুঠোফোনে জানান, ঘটনাটি আমি শুনেছি।সরজমিনে গিয়ে অধ্যক্ষ ড. একেএম মাসুদুল হক এর সাথে যোগাযোগ করলে তাকে কলেজে পাওয়া যায় নাই, অধ্যক্ষের কার্যালয়ে ছিল তালা বন্ধ। ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি এসে তার কার্যালয়ের তালা খুলে সাংবাদিকদের সাথে আলাপ কালে ১৭ই মার্চ জাতীয় দিবস পালন না করায় তিনি দুঃখ প্রকাশ করেন।

ঘটনাটি জানাজানি হলে এলাকার সুধী সমাজ ও অভিাভাবকদের মধ্যে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে। শিক্ষার মান উন্নয়ন ও সরকারি কলেজের পরিবেশ ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে অধ্যক্ষ ড. একেএম মাসুদুল হক এর অপসারণ সহ ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ বীরগঞ্জ কলেজ শাখার সাধারণ সম্পাদক আর রাফি রুদ্র, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক আরিফ হোসেন এর নেতৃত্বে ১৮ মার্চ বীরগঞ্জ সরকারি ডিগ্রী কলেজ ক্যাম্পাসে কলেজ ছাত্রলীগ বিক্ষোভ সভা, প্রতিবাদ ও মানববন্ধন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক লিমন রানা, কলেজ ছাত্রলীগের সদস্য, রাফি, সায়েম, নাজমুল, ফাহিম প্রমুখ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
𝐂𝐫𝐚𝐟𝐭𝐞𝐝 𝐰𝐢𝐭𝐡 𝐛𝐲: 𝐘𝐄𝐋𝐋𝐎𝐖 𝐇𝐎𝐒𝐓