1. info@dainikashardigonto.com : দৈনিক আশার দিগন্ত : দৈনিক আশার দিগন্ত
  2. info@www.dainikashardigonto.com : দৈনিক আশার দিগন্ত :
শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ১১:৩৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
দি রাউজান কো – অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লিমিটেড ৩য় বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত পলাশ প্রেসক্লাবের নবগঠিত কমিটির সভাপতি- মনা ,সম্পাদক – রনি  সোনারগাঁ থেকে বাড়ি ফেরার পথে লাশ হলেন পিতা- পুত্র সুন্দরবনে মধু আহরণ করতে গিয়ে বাঘের আক্রমণে মৌয়াল নিহত বগুড়ার নিউমার্কেটে দোকানের সাটার ভেঙ্গে ১২০ ভরি স্বর্ণালঙ্কার চুরি বগুড়ার আদমদীঘিতে ২শত ৫০ বোতল ফেনসিডিলসহ গ্রেপ্তার দুই নড়াইলে একাধিক মামলায় সাজাপ্রাপ্ত দুইজন গ্রেফতার দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আরও ৭ দিন বন্ধ গাইবান্ধায় নিখোঁজ কিশোরের মরদেহ মিললো সেফটি ট্যাংকে বগুড়ার কাহালুর বারমাইলে আসক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে হুইল চেয়ার ও নগদ অর্থ প্রদান

ইউপি রাস্তার প্রায় কোটি টাকার গাছ গোপন নিলামে নামমাত্র মুল্যে বিক্রি

  • প্রকাশিত: শনিবার, ১০ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪
  • ১৮ বার পড়া হয়েছে

শাহারুল ইসলাম,গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ

গাইবান্ধা পলাশবাড়ী উপজেলার হরিনাথপুর ইউনিয়নের ৬টি ওয়ার্ডসহ ইউনিয়নের সকল রাস্তার গাছ এক কাগজে নিধনের মহাপরিকল্পনা নিয়ে মাঠে কোমর বেঁধে নেমেছে ইউপি চেয়ারম্যান কবির হোসাইন জাহাঙ্গীর। ম্যানেজ প্রক্রিয়ায় ও গাইবান্ধা বন বিভাগের যোগসাজসে গোপনে পলাশবাড়ী উপজেলার হরিনাথপুর ইউনিয়নে মনগড়া নিলামের মাধ্যমে ইউপি রাস্তার প্রায় ১ কোটি টাকার ২ হাজার ৬’শ ৬৮টি ইউক‍্যালিপ্টাস গাছ নামমাত্র মুল্যে ২৯ লাখ টাকায় বিক্রি করার অভিযোগ হরিনাথপুর ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে। এব‍্যাপারে উক্ত ইউনিয়নের ইউপি সদস্য-সদস‍্যারা জেলা প্রশাসকসহ বিভিন্ন দপ্তরের অভিযোগ দায়ের করেছেন বলে জানা যায়।দায়েরকৃত এ অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, পলাশবাড়ী উপজেলার হরিনাথপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান কবির হোসাইন জাহাঙ্গীর কোন ইউপি সদস্য ও পরিষদের সচিবকে অবগত না করে ইউনিয়নের ১, ২, ৩, ৪, ৮ ও ৯ ওয়ার্ডের হরিনাবাড়ী থেকে দেওয়া বাড়ী পর্যন্ত, গাইবান্ধা-নাকাই রোডের বেড়াবাসা হইতে লেচুর ভিটা পর্যন্ত, ফতের ভিটা হইতে কন্ঠার ভিটা পর্যন্ত, হরিণাবাড়ী কদমতলি হইতে ভেলাকোপা পর্যন্ত রাস্তার দুই পার্শ্বের ২ হাজার ৬’শ ৬৮টি ইউক‍্যালিপ্টাস গাছ মনগড়া নিলাম দেখিয়ে চেয়ারম্যান গোপনে নামমাত্র কাগজ তৈরী করে প্রায় ১ কোটি টাকার গাছ মাত্র ২৯ লক্ষ টাকায় বিক্রি করেছে। গাছগুলো ২০২৪ সালের জানুয়ারি মাসের ২১ তারিখে কর্তন করাকালে ইউপি সদস্য-সদস‍্যারা বাঁধা প্রদান করেন এবং হরিনাবাড়ী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে খবর দেয়। হরিণাবাড়ী পুলিশ গাছগুলো আটক করে। এব‍্যাপারে উক্ত ইউপি সদস্যরা গাইবান্ধা জেলা প্রশাসক বরাবরে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। এর অনুলিপি প্রদান করেন বিভাগীয় কমিশার ও উপ-পরিচালক, স্থানীয় সরকার গাইবান্ধার এবং স্থানীয় জাতীয় সংসদ সদস্যের নিকট প্রদান করেন।এ বিষয়ে ইউপি সচিব শাহনাজ পারভীন জানান, গাছ গুলো নিলামের বিষয়ে আমার জানা নেই। আমার অফিসে কোন কাগজপত্রও নেই, এ বিষয়ে চেয়ারম্যান বলতে পারবেন। গাছ দরপত্রের আহবান কমিটির সদস্য গাইবান্ধা জেলা বন বিভাগের কর্মকর্তা এ এইচ এম শরিফুল ইসলাম জানান, নিলামের দিন অসুস্থ্য থাকায় তিনি উপস্থিত ছিলেন না মৌখিক ভাবে নিলাম বাস্তবায়নের নির্দেশ প্রদান করেন। আরেক সদস্য উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা সুজন মিয়া জানান, নিলামের দিন সরকারি কাজে নিয়োজিত থাকায় নিলামে অংশ নেননি। তিনিও মৌখিকভাবে দরপত্র অনুয়ায়ী নিলাম বাস্তবায়নে চেয়ারম্যনেকে নির্দেশ প্রদান করেছেন। এদিকে ইউপি চেয়ারম্যান কবির হোসাইন জাহাঙ্গীর কোন কাগজ দিতে না চাইলেও তিনি জানান, নিলামের মাধ্যমে গাছ বিক্রি করা হয়েছে। এজন্য গাছ কর্তনের অনুমতিপত্র সমিতির নিকট প্রদান করেছি।  অত্র ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি সচিব, সদস্য-সদস‍্যাগণকে অবগত না করে ইউপি রাস্তার দুই পার্শ্বের ২ হাজার ৬’শ ৬৮টি ইউক‍্যালিপ্টাস গাছ গোপন নিলামের মাধ্যমে চেয়ারম্যান গোপনে নামমাত্র কাগজ তৈরি করে প্রায় ১ কোটি টাকার গাছ মাত্র ২৯ লক্ষ টাকায় বিক্রি করেছেন। গাছগুলো ২০২৪ সালের জানুয়ারি মাসের ২১ তারিখে কর্তন করা কালে ইউপি সদস্য-সদস‍্যারা বাঁধা প্রদান করেন এবং হরিনাবাড়ী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে খবর দেয়। হরিণাবাড়ী পুলিশ গাছগুলো আটক করে। এর মাঝে চেয়ারম্যান ইউপি সদস্যদের মোটা অংকের টাকা দিয়ে ম‍্যানেজ করে পুনরায় গাছ কাটা শুরু করেন। এরপর বিষয়টি ৮ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলা পরিষদ হলরুমে জেলা প্রশাসকের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় বিষয়টি গণমাধ্যম কমীরা উথাপন করলে তিনি সঙ্গে সঙ্গে উক্ত ইউপি চেয়ারম্যানের নিকট এর সঠিক জবাব চান। জবাবে চেয়ারম্যান কোন সঠিক উত্তর বা কাগজ দেখাতে ব‍্যর্থ হন। এব‍্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দেয়ার নির্দেশ প্রদান করেন ও স্থানীয় গণমাধ্যমকর্মীদের জেলা প্রশাসক বরাবরে লিখিত অভিযোগ দেওয়ার নির্দেশ প্রদান করেন। এসময় বিষয়টি দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের আশ্বাস প্রদান করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার কামরুল হাসান।

উল্লেখ্য, উপজেলার হরিনাথপুর ইউনিয়নের ইউপি রাস্তার গাছ গুলো কোটি টাকা মুল্যের হলেও রাজস্ব ফাকি দিতে ও নিজের পকেট গরম করে ম্যানেজ প্রক্রিয়ায় দরপত্র আহবান কমিটির সদস্যদের অনুপস্থিতিতে কাগজ কলমে শত শত গাছ নামমাত্র টাকায় বিক্রির সাথে জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রয়োজনীয় হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন সচেতন মহল ও স্থানীয় জনসাধারণ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
𝐂𝐫𝐚𝐟𝐭𝐞𝐝 𝐰𝐢𝐭𝐡 𝐛𝐲: 𝐘𝐄𝐋𝐋𝐎𝐖 𝐇𝐎𝐒𝐓